Apps

Picture

নৌকা জাদুঘর

জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বরগুনায় চালু হয়েছে দেশের প্রথম ‘নৌকা জাদুঘর’।

পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে দুঃসাহসিক সব অভিযানেও ব্যবহৃত হয়েছে নৌকা। নতুন প্রজন্মের কাছে হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য ও বাহারি গড়নের নৌকা তুলে ধরতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে এই নৌকা জাদুঘর।

এই জাদুঘরের নাম রাখা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর’। দেশ-বিদেশের নানা নকশার ১০০টি নৌকার দৃষ্টিনন্দন অনুকৃতি নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর।

বরগুনার জেলা প্রশাসকের প্রচেষ্টায় মাত্র ৮১ দিনের মধ্যে সম্পন্ন হয় বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর। জেলা প্রশাসন ভবন সংলগ্ন ৭৮ শতাংশ জমিতে নৌকার আদলে তৈরি করা হয় জাদুঘরটি।

জাদুঘরে স্থান পাওয়া নৌকার মধ্যে রয়েছে- ডিঙ্গি, একমালই, কেরায়া, কোষা, পানসি, গয়না, কোন্দা, ঘাসি, সাম্পান, লম্বাপাদি, কাঠামী বা রপ্তানি, বাচারি, পাতাম ও বাইচের নৌকা।

নৌকা যাদুঘর দেখতে আসছেন নানা বয়সী মানুষ বলেন, এই নৌকা আমাদের ইতিহাস, এই নৌকা আমাদের চেতনা। বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর মানুষের মধ্যে নতুন একটা মাত্রা যোগ করবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

তারা আরও জানান, গ্রামের ঐতিহ্য যে নৌকা সেইটাই এখানে এসে দেখতে পেয়েছি। উপমহাদেশের প্রথম নৌকা জাদুঘর বরগুনাতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুকে এবং এই নৌকাকে উপস্থাপন করার জন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি।

এছাড়া বরগুনা পৌরসভার মেয়র মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, নৌকা জাদুঘরটি উদ্বোধন করতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি এবং মনে করি যে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন করতে আমি সক্ষম হয়েছি।

 
Copyright © 2021 Superintendent of police, Barguna. Developed by ICT Section, Barguna Police.